অন্ত্যমিল ছড়া পুরস্কার বিতরণ ও ‘বগুড়ার ছড়া: চর্চার অর্ধশতক’ গ্রন্থের মোড়ক উন্মোচন

শুক্রবার, ০৪ মে ২০১৮ | ১:২৩ পূর্বাহ্ণ | 1181 বার

অন্ত্যমিল ছড়া পুরস্কার বিতরণ ও ‘বগুড়ার ছড়া: চর্চার অর্ধশতক’ গ্রন্থের মোড়ক উন্মোচন

চাষাবাদ ডেস্কঃ
প্রতিনিধিত্বশীল ছড়ার কাগজ অন্ত্যমিল প্রবর্তিত ‘অন্ত্যমিল ছড়া পুরস্কার ২০১৮’ পেলেন প্রখ্যাত ছড়াকার আবু জাফর সাবু ও মনজু রহমান।

গতকাল (বুধবার) বিকেলে বগুড়ার টিএমএসএস মার্কেটের স্কাই ভিউ মিলনায়তনে তাদের হাতে এ পুরস্কার তুলে দেয়া হয়। লেখক ও সংগঠক ড. সৈয়দ আব্দুল আজিজের সভাপতিত্বে এতে অতিথি ছিলেন সাহিত্য সংগঠক রেজাউর রহমান ডিংগু। আলোচনায় অংশ নেন ছড়াকার এফ শাহজাহান ও একে আজাদ। ছড়াকার মাহফুজ ফারুকের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন অন্তমিল সম্পাদক রহমান তাওহীদ। এ সময় ছড়াকার-সম্পাদক সাজ্জাদ বিপ্লব রচিত ও ড. সৈয়দ আব্দুল আজিজ সম্পাদিত ‘বগুড়ার ছড়া: চর্চার অর্ধশতক’ গ্রন্থের মোড়ক উন্মোচন করা হয়।

সভাপতির বক্তব্যে সৈয়দ আজিজ বলেন, ‘বগুড়ার ছড়া: চর্চার অর্ধশতক গ্রন্থের মাধ্যমে বগুড়ার ছড়া চর্চার ইতিহাসকে তুলে ধরা হয়েছে। এর মধ্য দিয়ে আগামী প্রজন্ম তাদের পূর্বসূরীদের সৃজনশীল কাজের সাথে পরিচিত হতে পারবে। বগুড়ার ছড়া তথা সাহিত্য চর্চা আরো গতিশীল হবে।’ তিনি বলেন, ‘অন্ত্যমিল পরিবার ছড়া পুরস্কার প্রবর্তনের মধ্য দিয়ে শুধু গুণী ছড়াকারদের সম্মানিতই করেনি; সাথে নিজেরাও সম্মানিত হয়েছেন।’

অতিথির বক্তব্যে সংগঠক ও সাবেক ছাত্রনেতা রেজাউর রহমান ডিংগু বলেন, ‘বগুড়ার ছড়া চর্চাকে বেগবান করতে আগামীতে ব্যপক ভিত্তিক কর্মসূচী হাতে নিতে হবে। আমি তোমাদের সাহস যোগানোর জন্য এসেছি। যেন তোমরা এগিয়ে যেতে পারো।’ ছড়াকার এফ শাহজাহান বলেন, ‘অন্ত্যমিলের এ উদ্যোগ যেন আগামীতে অব্যাহত থাকে। সে সাথে বগুড়ায় একটি জাতীয় পর্যায়ের ছড়া উৎসব আয়োজন করা হোক। অন্ত্যমিল সম্পাদক রহমান তাওহীদ বলেন, ‘অন্ত্যমিল নিছক কোনো ছড়াপত্রিকার নাম এটি। এটি ছড়া আন্দোলনের একটি প্লাটফর্ম। ছড়ার কাগজ প্রকাশের পাশাপাশি অন্ত্যমিল ছড়া নির্ভর অন্য অনেক কর্মসূচী বাস্তবায়ন করবে। যার অংশ হিসেবে এ পুরস্কার প্রবর্তন করা হলো।’

অন্ত্যমিল পুরস্কার ২০১৮ প্রাপ্তিতে ছড়াকার-সাংবাদিক আবু জাফর সাবু বলেন, ‘অন্ত্যমিল আমাকে পুরস্কৃত করার মধ্য দিয়ে ছড়া লেখার তাগিদকে আরো উস্কে দিল। আমি বিশ্বাস করি মানুষের ভাল কাজের স্বীকৃতি দেরীতে হলেও মেলে। এর প্রমাণ বহন করছে এ পুরস্কার’। ছড়াকার-কবি মনজু রহমান বলেন, ‘অন্ত্যমিল পুরস্কার প্রাপ্তিতে নতুন করে একটি দায়বদ্ধতা যুক্ত হলো। বগুড়ার ছড়া তথা সাহিত্য আন্দোলনকে আবারো তার পূর্বের গৌরবান্বিত জায়গায় ফিরিয়ে নিয়ে যেতে হবে।

অন্ত্যমিল ছড়া পুরস্কার ২০১৮ প্রদান ও বগুড়ার ছড়া: চর্চার অর্ধশতক গ্রন্থের মোড়ক উন্মোচন অনুষ্ঠানে উত্তরাঞ্চলের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে প্রায় ৩০জন ছড়াকার, কবি, সাহিত্যিক, সম্পাদক অংশ নেন। ছড়া পাঠ, স্মৃতি রোমন্থন ও আলোচনার মধ্য দিয়ে এক প্রাণবন্ত আড্ডায় পরিণত হয় পুরো অনুষ্ঠান।

ছবি: রাশেদ রোকন

মন্তব্য করতে পারেন...

comments

Powered by Facebook Comments

Social Media Auto Publish Powered By : XYZScripts.com