আল হাদী’র স্মৃতিচারণ কবিতা

বৃহস্পতিবার, ২৩ জুলাই ২০২০ | ৩:৪২ অপরাহ্ণ | 294 বার

আল হাদী’র স্মৃতিচারণ কবিতা

আমার নদ ও গাঁ
আব্দুল্লাহ আল হাদী

আমার গাঁয়ের ছবিখানা বিধি কোন তুলিতে আঁকা?
ছায়া সুনিবিড় নদ ঘেঁষা গাঁয়ে আত্মা যে আছে বাঁধা।
কতো আত্মীয়, সোণা মানিক ধন খেলিয়াছি নদের তীরে,
কতোঘর বাঁধিয়াছি, গড়াগড়ি দিয়াছি হিসেব নাহি করে।
শীতের সকালে স্নানে গিয়া, ফিরিয়াছি দুপুর বেলা,
তপ্ত বালুকে গায়ে মাখিয়া চলিতো কতো যে খেলা।
কচুরিপানায় লুকোচুরি করিত পানকৌড়ির ছানা,
দুষ্টু ছেলেরা ছানাদের ধরিতে ভেলা নিয়ে দিত হানা।
উজানে গিয়া বর্ষার স্রোতে ভাটিয়াল সাঁতার দিয়া,
কতো দূর যাবে হতো প্রতিযোগীতা সকল বন্ধু নিয়া।
পালের নৌকা, কোশা নৌকা চলিতো টইটুম্বুর করে,
নাচিয়া গাহিয়া সাজিয়া চলিতো নৌভ্রমণের তরে।
রাত দিন চলিত ধীবরের খেলা জাল বড়শী পেতে,
মরিবার আগে বাঁচিবার স্বাদ উপভোগ করিতে।
শরতে ফুটিত দু’ধার ভরে অগণিত কাশফুল,
প্রিয়জন নিয়ে সেথা যেতে কভু হতোনাকো কারো ভুল।
কতো যে স্মৃতি দিতেছে উঁকি মনের মধ্যিখানে,
নদী ভাঙনের ভয়াল দৃশ্য ভেসে উঠে ক্ষণেক্ষণে।
রাত্রি জাগিয়া পাহারা চলিত সেনা টহলের মত,
তীর ভাঙিলে বাঁধ ফাটিলে সবাই জড়ো হতো।
কতো বাড়ি ঘর হইয়াছে বিলিন আড়িয়ালখার বুকে,
সিকস্তি হইয়া অনেক কৃষক কাঁদিয়াছে ধুঁকে ধুঁকে।
তবুও সেথাই গড়িয়াছে জনপদ শত বছরের প্রাচীন,
সোণা গাঁয়ের সব সোণা মাণিক ধন সবাই সবার আপন।
কতো যে সূর্য উঠিল ডুবিল এই না গাঁয়ের তরে,
জীবন সূর্য ডুবিলে হেথায় বাঁধা রবো চিরতরে।

লেখকঃ আব্দুল্লাহ আল হাদী

———+++++——–

মন্তব্য করতে পারেন...

comments

Powered by Facebook Comments

Social Media Auto Publish Powered By : XYZScripts.com