কটিয়াদীতে প্রভাবশালীর নির্যাতনে দিনমজুর শিখন মিয়ার মৃত্যু

শনিবার, ২০ জানুয়ারি ২০১৮ | ৮:২৭ অপরাহ্ণ | 333 বার

কটিয়াদীতে প্রভাবশালীর নির্যাতনে দিনমজুর শিখন মিয়ার  মৃত্যু

কিশোরগঞ্জের কটিয়াদীতে এক প্রভাবশালী পরিবারের নির্যাতনে মারাত্মক ভাবে আহত হয়ে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ২৪ দিন পর দিনমজুর মো: শিখন মিয়া (২৮) নামে এক যুবকের সোমবার রাতে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে মৃত্যু হয়েছে। শিখন মিয়া উপজেলার মুমুরদিয়া ইউনিয়নের বাগহাটা গ্রামের নূর হোসেনের ছেলে।

জানা যায়, গত ২২ ডিসেম্বর সকালে উপজেলার মুমুরদিয়া ইউনিয়নের চাতল বাগহাটা গ্রামের নেশাগ্রস্থ রোকন মিয়া দিনমজুর শিখন মিয়ার ঘরের সামনে আবোতাবোল বকতে থাকে। এ সময় রোকনকে চলে যেতে বললে সে ক্ষিপ্ত হয়ে ওঠে। এক পর্যায়ে শিকন নেশাগ্রস্থ রোকনকে ধাক্কা মেরে সরিয়ে দেয়। এ ঘটনায় রোকন, তার বাবা, চাচা, ভাই ও চাচাত ভাইয়েরা মিলে শিকনকে হাত পা বেধে লোহার রড ও দেশীয় অস্ত্র এককাটিয়া দিয়া প্রায় দেড় ঘন্টা নির্যাতন করে।

নির্যাতনে তার নিচের পাটির একটি দাঁত ভেঙ্গে যায়, জিহ্বা, মাথাসহ সমস্ত শরীরে মারাত্মক ভাবে জখম হয়। এ সময় তার বসত ঘরটি ধারালো দা দিয়ে কুপিয়ে ছিন্ন ভিন্ন করে ফেলে। শতশত মানুষ এ তান্ডব দেখলেও প্রভাবশালীদের সামনে কেউ উদ্ধার করতে সাহস পায়নি। মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান সাথী বেগম সংবাদ শুনে স্থানীয় ইউপি মেম্বার ইসমাইল, শাস্তু ও আল আমিনকে নিয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে তাকে উদ্ধার করে চিকিৎসার জন্য উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে প্রেরণ করেন। কর্তব্যরত ডাক্তার তার অবস্থার অবনতি দেখে কিশোরগঞ্জ সদর হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য প্রেরণ করেন।

কিন্তু অর্থাভাবে চিকিৎসা করাতে না পেরে তাকে বাড়িতে নিয়ে আসে। গত শনিবার তার অবস্থার চরম অবনতি দেখে গ্রামের মানুষ অর্থ সাহায্য দিয়ে তাকে আবার প্রথমে কিশোরগঞ্জ সদর হাসপাতালে পরে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যায়। সাবেক ইউপি মেম্বার হাজী মো: তাহের উদ্দিন জানান অমানবিক নির্যাতনে দিনমজুর শিখন মিয়ার মৃত্যু হয়েছে আমরা এলাকাবাসী এদের বিচার চাই। কটিয়াদী থানার ওসি জাকির রব্বানী বলেন, এ ব্যাপারে কেউ অভিযোগ করে নি। সংবাদ পেয়ে গত শনিবার একজন অফিসারকে পাঠিয়েছি। তিনি উন্নত চিকিৎসার জন্য হাসপাতালে নেওয়ার পরামর্শ দিলে তাকে কিশোরগঞ্জ হাসপাতালে নেয়া হয়। হাসপাতালে শিকনের মৃত্যু হয়েছে এ ব্যাপারে তিনি বলেন, কাউকে ছাড় দেয়া হবে না। দায়ী ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

মন্তব্য করতে পারেন...

comments

Development by: webnewsdesign.com