মো. তাজ উদ্দীন সম্রাট’র ঈদ ছড়াগুচ্ছ

শনিবার, ১৬ জুন ২০১৮ | ২:১২ পূর্বাহ্ণ | 1220 বার

মো. তাজ উদ্দীন সম্রাট’র ঈদ ছড়াগুচ্ছ

১. কাজের ছেলে

ঈদের বাজার শর্ত হাজার
করতে হবে পূরণ
বৌ’য়ের শাড়ি, মেয়ের জামা
ছেলের হলো– মুড অন।

ছেলের জন্য কিনতে হবে
প্যান্ট, শার্ট এবং জুতো
‘ওতো কিছু যায় না কেনা’
বলতে খেলাম গুতো।

বৌ’য়ের জন্য জুয়েলারী
মেয়ের জন্য ফ্রক,
ঈদ কী রে ভাই রোজার আগেই
চলছে যে বক বক।

সবাই ভাবছে নিজের কথা
একটি ছেলে চুপ
জীর্ণ দেহে রিক্ত নয়ন
মলিন বদন রূপ।

সেই ছেলেটার নির্মোহ ভাব
নেই তো কিছু চাওয়া,
খেঁটে খেঁটে মরছে কেবল
হয় না কিছু পাওয়া।

ঈদ এলেই যে যার মত
খুশির বায়না বাঁধে,
আমার কেবল সেই ছেলেটির
জন্য হৃদয় কাঁদে।

২. পথ শিশুর ঈদ

ঈদ এসেছে সবার ঘরে
এই কথাটি মিথ্যে
তারাই হাসে ঈদের হাসি
আছে যারা বিত্তে।

গরিব শিশু-পথের টোকাই
তাদের আবার ঈদ কি?
চোখের জলে ভেজায় তনু
এক ফোঁটা যায় নিদ কি?

আমলা – মন্ত্রী – ধনপতির
গিন্নি খুশির বেশে
ঈদ এসেছে, কেনাকাটা
হবে রে জম্-পেশে।

কেনাকাটায় ধুম পড়েছে
নেই তো কারো সবর,
অনাথ ছেলের মনটা খারাপ
কেউ নিলো না খবর!

৩. অনাথ শিশুর ঈদ

ঈদের দিনে রোজ,
একটি ছেলে যায় কেঁদে যায়
কেউ রাখেনি খোঁজ!
কেঁদেই বেলা যায়,
অভাগা তার কপাল পোড়া
কেউ ডাকেনি আয়।

উপোস বেলা যায়,
ঈদের দিনে ফিরনি-পায়েস
সবাই যখন খায়।
ছেঁড়া জামা গায়,
ঈদের দিনে একটি জামা
তাও জোটেনি হায়!

চাঁদনি রাতে হায়,
স্বপ্ন দেখে সেই ছেলেটি
কেউ ফিরে না চায়।
জন্ম থেকে কাঁদে,
ছোট্ট মনের শত দুঃখ
অশ্রু নালে বাঁধে।

এক মুঠো ভাত চায়,
কোর্মা-পোলাও, ফিরনি-পায়েস
নাইবা যদি পায়।
তাও হয় না পাওয়া,
চোখের জলে যায় ভেসে যায়
অবুজ মনের চাওয়া।

মন্তব্য করতে পারেন...

comments

Powered by Facebook Comments

Social Media Auto Publish Powered By : XYZScripts.com