লাখাইতে নমুনা শস্য কর্তন ও বোরো প্রদর্শনীর মাঠদিবস অনুষ্ঠিত

বৃহস্পতিবার, ১৯ এপ্রিল ২০১৮ | ৫:৫২ অপরাহ্ণ | 163 বার

লাখাইতে নমুনা শস্য কর্তন ও বোরো প্রদর্শনীর মাঠদিবস অনুষ্ঠিত

অমিত ভট্টাচার্য্যঃ
লাখাই উপজেলা কৃষি বিভাগের আয়োজনে ধান কাটা উৎসব ও নমুনা শস্য কর্তন এবং রাজস্ব খাতের অর্থায়নে বোরো প্রদর্শনীর মাঠদিবস অনুষ্ঠান স্বজনগ্রাম ব্লকের বটতলা মাঠে এবং বুল্লা ব্লকের উত্তর মাঠে অনুষ্টিত হয়।

কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপ পরিচালক মোহাম্মদ আলীর সভাপতিত্বে ও উপ সহকারী কৃষি অফিসার অমিত ভট্টাচার্য্যের সঞ্চালনায় অনুষ্টানে কোরআন তেলাওয়াত করেন সদর উপজেলার কৃষি অফিসার মোঃ কায়কোবাদ, প্রধান অতিথি ছিলেন হবিগঞ্জ জেলা প্রশাসক মাহমুদুল কবীর মুরাদ, বিশেষ অতিথি ছিলেন লাখাই উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোহাম্মদ ওবায়দুর রহমান, স্বাগত বক্তব্য রাখেন জেলা প্রশিক্ষণ অফিসার বশির আহমেদ সরকার , বক্তব্য রাখেন, উপজেলা কৃষি অফিসার মোঃ শহিদুল ইসলাম, লাখাই ইউনিয়ন চেয়ারম্যান মোঃ আরিফ আহমেদ রোপন প্রমুখ।

গত বছর এসময় ছিল হাহাকার বর্তমানে ফসলের অবস্থা খুবই ভাল। লাখাই উপজেলার ৬৬৬০ জন কৃষকের মধ্যে বোরো ১৪০০ কৃষকের মধ্যে আউশ প্রনোদনা দেয়া হয়েছে। বর্তমান সরকার কৃষকদের মধ্যে উপহার হিসেবে বিনামূল্যে বীজ সার নগদ টাকা দেয় এমনকি যন্ত্রপাতি ও দেয় এবং কৃষকদের পরিশ্রমের ফলেই কৃষকরা বাম্পার ফলন ঘরে তুলতে পারে। অতীতে সারের জন্য কৃষকদের চড়া মূল্য দিতে হতো হুলিয়া হতে হয়েছে মামলা খেয়েছে আর বর্তমান সরকারের আমলে ন্যায্যমূল্যে সার ক্রয় করতে পারে বলেই সুষম মাত্রায় জমিতে প্রয়োগ করতে পারে। জেলা প্রশাসক বলেন মাঠ পর্যায়ে কৃষি বিভাগের কর্মকর্তাদের অক্লান্ত পরিশ্রম ও সঠিক পরামর্শেই দেশ আজ খাদ্য রপ্তানি করছে বিধায় প্রসংশা করেন এবং কৃষকদের পাশে থাকার পরামর্শ দেন। দেশে শ্রমিক সংকট দিন দিন বাড়ছে তাঁর সরকার কৃষিতে যান্ত্রিকীকরনের মাধ্যমে ব্যাপক ভূমিকা পালন করছে অতীতের দিকে তাকালে আমরা চিন্তা করি হালের বলদ এখন আর দেখা যায়না, চাষাবাদ ও মাড়াই দিতে সময়ও কম তেমন লাগেনা। কিন্তু বাম্পার ফলন হলেও কৃষক যখন তার ফসল ঘরে তোলার সময় হয় তখন দেখা যায় চার ভাগের এক অংশ শ্রমিকের হাতে চলে যায় বর্তমান সরকার কৃষকদের ৭০% ভর্তুকি দিয়ে কৃষকদের হাতে তুলে দিচ্ছে লক্ষ লক্ষ টাকার কৃষি যন্ত্র, আর এর ফলে কৃষকদের শ্রম, সময় ও খরচ কম হওয়ায় লাভবান হচ্ছে এবং তার সন্তানদেরকে উচ্চ শিক্ষায় শিক্ষিত করতে সক্ষম হচ্ছে।উন্নত প্রযুক্তির এসব দিক এবং সরকারের উন্নয়ন মুলক কাজের প্রশংসনীয় বার্তা সকলকে প্রচার করার জন্য বিশেষভাবে কৃষকভাইদের নিকট আহবান জানান। চলতি বছর ১১৫০০ হেক্টর জমির লক্ষ্যমাত্রায় বোরো আবাদ হয়েছে। আজ নমুনা শস্য কর্তনে ব্রিধান-৫৮ জাতপ ২০ বর্গমিটারের হিসাবে হেক্টর প্রতি ৬.৫ মেঃটন উৎপাদনের পরিমাপ পাওয়া যায়।

খামার যান্ত্রিকীকরনের মাধ্যমে ফসল উৎপাদন বৃদ্ধিকরন প্রকল্পের আওতায় ২০১৭-২০১৮ অর্থবছরে কৃষকদের মধ্যে ৭০% সরকারী উন্নয়ন সহায়তা ভর্তুকি মুুল্যে আগ্রহী কৃষকদের মধ্যে এ পর্যন্ত লাখাই উপজেলায় ৭ টি মিনি কম্বাইন হারভেস্টার ( ১টি ওয়াকিং টাইপসহ) ৪৫ টি রিপার ১০টি পাওয়ার থ্রেসার সহ বিভিন্ন কৃষি যন্ত্রপাতি বিতরন করেন কৃষি বিভাগ। জেলা প্রশাসক বুল্লা ব্লকে কম্বাইন হারভেস্টার যন্ত্র দিয়ে ধান কাটা উদ্বোধন করেন এসময় কৃষকদের মধ্যে ব্যাপক উৎসাহ দেখা যায় কৃষক মোঃ আব্দুর রউপ বলে প্রতি বিঘায় শ্রমিক দিয়ে ধন কাটলে ৪ মন ধান খরচ দিতে হতো কিন্তু তিনি নিচ্ছেন ২.৫ মন এতে কৃষকরাও লাভবান হচ্ছেন এ সময় জেলা প্রশাসক বলেন খরচ আরো একটু কমিয়ে নিতে। এ সময় কৃষক গন্যমান্য ব্যাক্তি ও উপজেলা কৃষি অফিসের সকল কর্মকর্তা ও প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক্স মিডিয়ার সাংবাদিকগন উপস্থিত ছিলেন।

মন্তব্য করতে পারেন...

comments

Development by: webnewsdesign.com