স্যালুট কৃষি যোদ্ধাদের

মঙ্গলবার, ২১ এপ্রিল ২০২০ | ১১:০৬ পূর্বাহ্ণ | 855 বার

স্যালুট কৃষি যোদ্ধাদের

স্যালুট করোনা কৃষি যোদ্ধাদের

(কৃষিবিদ, ডিপ্লোমা কৃষিবিদ ও কৃষক)

কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর তথা উপজেলা কৃষি অফিসার, অতিরিক্ত কৃষি অফিসার, কৃষি সম্প্রসারণ অফিসার, উপ-সহকারী কৃষি কর্মকর্তাবৃন্দ দেশের ১৭কোটি মানুষের মুখে অন্ন তুলে দিতে ও আগামী দিনের খাদ্য সংকট নিরসনে চলমান করোনা মহামারি পরিস্থিতিতে নিজস্ব সুরক্ষার মাধ্যমে সরকার ঘোষিত ছুটির মধ্যে নিরন্তর কাজ করে যাচ্ছেন,

উল্লেখযোগ্য কিছু কাজঃ

১। লক ডাউনের মধ্যে হাওড় এলাকাসহ দেশের বিভিন্ন অঞ্চলে বোরোধান কর্তনে আগ্রহী কৃষি শ্রমিক সংগ্রহ, তাদের নাম, ঠিকানার তালিকা তৈরি করে তাদেরকে অন্যান্য দপ্তরের সাথে সমন্বয়ের মাধ্যমে প্রেরণের ব্যবস্থাগ্রহণ।

২। পরিপক্ব বোরোধান সময়মতো কর্তন, মাড়াই, ঝাড়াইয়ের ব্যবস্থা গ্রহণে (হাওড় এলাকার জন্য ৭০% ও অন্যান্য এলাকার জন্য ৫০% ভর্তুকি মূল্যে) কৃষি যন্ত্রপাতি ক্রয়ে আগ্রহী কৃষকদের কাছে পৌছানোর ব্যবস্থা গ্রহণ করছেন।

৩। গম ক্রয়ের জন্য কৃষক তালিকা প্রনয়ন করছেন।।

৪। ধান ক্রয়ের জন্য কৃষক তালিকা প্রণয়ন করছেন।

৫। আউশ প্রণোদনা সহায়তা প্রদানের ব্যবস্থাগ্রহণ।

৬। সামাজিক দুরত্ব বজায় রেখে আউশ মৌসুমের জন্য তালিকাভুক্ত চাষীদের মাঝে সার ও বীজ বিতরণ করছেন।

৭। কৃষকের জমিতে উৎপাদিত সবজি ক্রয়ের উদ্যোগ গ্রহণের মাধ্যমে ত্রাণ সামগ্রীতে কৃষি পণ্য যুক্ত ও বিতরণের দ্বারা কৃষককে মূল্য প্রাপ্তিতে সহযোগিতা প্রদান।

৮। নিরাপদ ফসল উৎপাদনে ও পুষ্টির চাহিদা পূরণে বসতবাড়ির আংগিনা, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের অব্যবহৃত, ফাঁকা স্থান, রাস্তার দুইপাশে, ছাদ, জমির আইলে শাক, সব্জি উৎপাদনে বীজ, চারা, রাসায়নিক সার বিতরণের উদ্যোগ গ্রহণ।

৯। সার, বীজ ও বালাইনাশকের মজুত ও সরবরাহ ঠিক রাখতে নিয়মিত মাঠপরিদর্শন,

১০। সার, বীজ ও বালাইনাশকের মূল্য বৃদ্ধি বা কৃত্রিম সংকট যেন সৃষ্টি না হয়,সেজন্য নিয়মিত মাঠ পরিদর্শন।

১১। কৃষক পর্যায়ে উন্নতমানের বীজ সহজলভ্য করার জন্য বিভিন্ন প্রকল্পের আওতায় বীজ উৎপাদন প্রদর্শনী সমূহ পরিদর্শন ও প্রয়োজনীয় পরামর্শ প্রদান।

১২। বিভিন্ন প্রকল্পের আওতায় কৃষি প্রযুক্তি সম্প্রসারণের বিভিন্ন প্রদর্শনী সমূহ বাস্তবায়ন, পরিদর্শন ও প্রয়োজনীয় পরামর্শ প্রদান।

১৩। সামাজিক দুরত্ব বজায় রেখে বোরো ধান কর্তনের ব্যবস্থা করছেন।

১৪। পরিসংখ্যান বিভাগ সহ সরকারকে তথ্য প্রদানের জন্য উপজেলা হতে জেলা, অঞ্চল সহ হেড কোয়ার্টারস, খামারবাড়িতে উৎপাদিত ফসলের গড় ফলন প্রেরণ।

১৫। ভিডিও কনফারেন্স এর মাধ্যমে দাপ্তরিক মিটিং সম্পাদন, কৃষকদের মাঠফসলের জন্য পরামর্শ প্রদান করছেন।

১৬। মোবাইলে, ইমো, ফেসবুক মেসেঞ্জারে ও সরাসরি কৃষকের সাথে যোগাযোগ, প্রয়োজনীয় পরামর্শ প্রদান করছেন।

১৭। খরিপ মৌসুমে ফসল উৎপাদনে কৃষি উপকরণের সরবরাহ নিশ্চিতে সঠিক পরিকল্পনায় গ্রহণ।

১৮। ত্রাণ বিতরণে সার্বিক সহযোগিতা প্রদান।

১৯। ট্যাগ অফিসারের দায়িত্ব পালন।

২০। সামাজিক দুরত্ব নিশ্চিতকরনে সচেতনতামূলক কর্মসূচী গ্রহণ।

পেটে ভাত না থাকলে
কোন ফুটানি থাকবে না।

কৃষিই সমৃদ্ধি।

সিরাজুল ইসলাম সাজু

মন্তব্য করতে পারেন...

comments

Powered by Facebook Comments

Social Media Auto Publish Powered By : XYZScripts.com