‘ইউএনও রক্ষা করেছেন, না হলে মাঠে মারা যেতাম’

সোমবার, ২৭ এপ্রিল ২০২০ | ১:৩৪ অপরাহ্ণ | 789 বার

‘ইউএনও রক্ষা করেছেন, না হলে মাঠে মারা যেতাম’

মহামারি করোনাভাইরাসের সংক্রমণ রোধে গোপালগঞ্জের প্রত্যন্ত গ্রামের হাটে অনলাইন ভিত্তিক বাঙ্গি-তরমুজ বিক্রির ব্যতিক্রমী উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। অনলাইনে প্রতিদিন ২০ থেকে ২৫ লাখ টাকার বাঙ্গি বিক্রি হচ্ছে। 

স্থানীয়রা জানায়, করোনা সংক্রমণের মধ্যে বাঙ্গি-তরমুজের মৌসুম শুরুতে কোটালীপাড়া উপজেলার কালিগঞ্জ বাজারে বাঙ্গি-তরমুজের কেনাবেচা প্রায় বন্ধ যায়। ক্ষেতে উৎপাদিত বাঙ্গি-তরমুজ নিয়ে কৃষক বিপাকে পড়ে যান। তাদের কপালে দুশ্চিন্তার ভাজ পড়ে যায়। তবে কোটালীপাড়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা অনলাইন ভিত্তিক বাঙ্গি-তরমুজ বিক্রির বাজার চালুর পর (www.tarmuzbazar.com) কৃষকের মলিন মুখে হাসি ফুটেছে।

webnewsdesign.com

কোটালীপাড়া উপজেলার কলাবাড়ি ইউপি চেয়ারম্যান মাইকেল ওঝা জানান, দীর্ঘ ২৫ বছর ধরে কোটালীপাড়া উপজেলার করাবাড়ি ইউনিয়নের ৬৫০ হেক্টর জমিতে বঙ্গি-তরমুজের আবাদ হয়ে আসছে। এ ইউনিয়নের কালিগঞ্জ বাজারে প্রতি বছর অন্তত ২শ’ কোটি টাকার বাঙ্গি-তরমুজ বিক্রি হয়। এ বছর বাঙ্গি-তরমুজের মৌসুম শুরুর পর করেনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাব দেখা দেয়। জেলা প্রশাসন গোপালগঞ্জ জেলাকে লকডাউন ঘোষণা করে। ফলে কালিগঞ্জ হাটে বাঙ্গি-তরমুজ নিয়ে এসে ক্রেতা না পেয়ে কৃষক হতাশ হয়ে বাড়ি ফিরে যান। ক্ষেতে উৎপাদিত বাঙ্গি-তরমুজ নিয়ে মহাদুর্ভোগে পড়ে যান তারা। কৃষকদের এ অবস্থা থেকে রক্ষা করতে কোটালীপাড়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা এসএম মাহফুজুর রহমান অনলাইন ভিত্তিক বাঙ্গি-তরমুজ বিক্রির ব্যতিক্রমী উদ্যোগ গ্রহণ করেন। স্বেচ্ছাসেবকরা কালিগঞ্জ বাজারে বসে ল্যাপটপে এ্যাপসের মাধ্যমে অনলাইনে ক্রেতা-বিক্রেতাদের যোগাযোগ করিয়ে দেন। তারপর তারা বাঙ্গি-তরমুজের দামদর ঠিক করেন। ক্রেতা অনলাইনে কৃষককে ব্যাংক একাউন্টে টাকা পেমেন্ট করেন। এরপর ট্রাক নম্বর রেজিস্ট্রেশন করে ওই ট্রাককে বাজারে ঢোকার অনুমতি দেওয়া হয়। ওই ট্রাকে বাঙ্গি-তরমুজ লোড করে দেওয়া হয়। এতে ক্রেতা-বিক্রেতাদের সমাগম ছাড়াই সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে বাঙ্গি-তরমুজের বাজার পরিচালনা সম্ভব হচ্ছে। 

তিনি আরো জানান, অনলাইনে কেনা-বেচার প্রথম দিনেই গত রোববার ৩৮ জন ক্রেতার কাছে ২০ লাখ টাকা মূল্যের বাঙ্গি-তরমুজ বিক্রি করা হয়। এরপর থেকে প্রতিদিনই ২০ থেকে ২৫ লাখ টাকার বাঙ্গি বিক্রি হচ্ছে।

নলুয়া গ্রামের কৃষক বিজয় বিশ্বাস বলেন্, গত বছরের তুলনায় এ বছর বাঙ্গি-তরমুজের বাম্পার ফলন হয়েছে। কিন্তু এ বছর প্রতিটি বাঙ্গি-তরমুজ অর্ধেক দামে বিক্রি হচ্ছে। প্রথম দিকে বাঙ্গি-তরমুজ বিক্রি করতে পারিনি। বাজারে ক্রেতা ছিল না। ভেবেছিলাম বাঙ্গি-তরমুজ ক্ষেতেই নষ্ট হবে। এখন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা অনলাইনে বাঙ্গি-তরমুজ বিক্রির ব্যবস্থা করে দিয়েছেন। এতে আমরা উপকৃত হচ্ছি। তবে দাম অর্ধেকে নেমে আসায় মহাজন, এনজিও এবং ব্যাংক ঋণ পরিশোধ নিয়ে দুশ্চিন্তায় রয়েছি। শেষ পর্যন্ত ক্ষেতের সব বাঙ্গি-তরমুজ বিক্রি করতে পারলে হয়তো এ দুশ্চিন্তা থাকবে না।

কলাবাড়ি গ্রামের কৃষক বীরেণ অধিকারী বলেন, করোন সংক্রমণ রোধ ও সমাজিক দূরত্ব বজায় রেখে অনলাইনে বাঙ্গি-তরমুজ বিক্রির উদ্যোগকে স্বাগত জানাই। এটি করে ইউএনও আমাদের রক্ষা করেছেন। না হলে একেবারেই মাঠে মারা যেতাম। এ ব্যবস্থা করে তিনি আমাদের মুখে হাসি ফুটিয়েছেন।

কোটালীপাড়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা এসএম মাহফুজুর রহমান বলেন, অনলাইনে বাঙ্গি-তরমুজ বিক্রির ব্যবস্থা করা হয়েছে। কোটালীপাড়া শেখ লুৎফর রহমান আদর্শ সরকারি কলেজের রোভার স্কাউটের সদস্যরা স্বেচ্ছাশ্রমের ভিত্তিতে কৃষককে অনলাইনে বাঙ্গি-তরমুজ বিক্রিতে সহায়তা করছে। এভাবে সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে অর্থনৈতিক কর্মকাণ্ড এখানে সচল রাখা হয়েছে।

কোটালীপাড়া শেখ লুৎফর রহমান আদর্শ সরকারি কলেজের রোভার স্কাউটের টিম লিডার নয়ন মাহামুদ বলেন, অনলাইনে তরমুজ বেচা-কেনার জন্য ক্রেতা ও বিক্রেতাকে আমাদের কাছে রেজিস্ট্রেশন করতে হয়। তবে সেজন্য তাদের আমাদের কাছে আসতে হয় না। তারপর আমরা বাঙ্গি-তরমুজ ক্রেতাকে অনলাইনের মাধ্যমে দেখাই। পছন্দ হলে ক্রেতা ও বিক্রেতারা দাম-দর ঠিক করেন। ব্যাংক, বিকাশ অথবা অনলাইনে ক্রেতা কৃষককে টাকা পরিশোধ করেন। তারপর ক্রেতা তার ট্রাক আমাদের মাধ্যমে রেজিস্ট্রেশন করান। ওই ট্রাক কালিগঞ্জ বাজারে আসার পর বাঙ্গি-তরমুজ লোড দেওয়া হয়। এখানে রেজিস্ট্রেশন ছাড়া কোন ট্রাক প্রবেশ করতে পারে না। 

গোপালগঞ্জ কৃষি সম্প্রসারণের ডিডি অরবিন্দু কুমার রায় বলেন, ডিজিটাল পদ্ধতিতে বাঙ্গি-তরমুজ বিক্রির উদ্যোগটি অভিনব। লকডাউনের মধ্যে এটি অনুসরণ করায় কৃষক উপকৃত হচ্ছেন। এ মডেল সারা দেশে ছড়িয়ে দেয়া হলে করোনার থেকে মানুষ অনেকটাই নিরাপদে কৃষিপণ্য কেনা-বেচা করতে পারবে।

সূত্রঃ সমকাল।

মন্তব্য করতে পারেন...

comments

Powered by Facebook Comments

বিএজিএড ডিগ্রি সম্পর্কে নানাবিধ জিজ্ঞাসার জবাবে কিছু প্রয়োজনীয় তথ্য

Social Media Auto Publish Powered By : XYZScripts.com