কলমের চারায় ১ম বার এমনকি ২য় বার মুকুল আসা অনেকটা কুমারী মেয়ে অল্পবয়সে গর্ভবতী হওয়ার মতো!

সোমবার, ০১ ফেব্রুয়ারি ২০২১ | ৭:১৪ অপরাহ্ণ | 193 বার

কলমের চারায় ১ম বার এমনকি ২য় বার মুকুল আসা অনেকটা কুমারী মেয়ে অল্পবয়সে গর্ভবতী হওয়ার মতো!

কলমের চারায় ১ম বার এমনকি ২য় বার মুকুল আসা অনেকটা কুমারী মেয়ে অল্পবয়সে গর্ভবতী হওয়ার মতো!

তাই আমের মতো যেকোনো কলমের চারায় অন্তত প্রথম ২ বার মুকুল বা ফুল ভেঙে দেয়া উত্তম, এতে গাছ শক্তিশালী হওয়ার যথেষ্ট সময় পায় এবং পরবর্তীতে ভালো ফলন দেয়৷ অনেকে এই ভুলটা করেন বলে ১ম বার আম খেয়ে পরে ৩-৫ বছর আর ফলন পান না, তখন বলেন জাত ভালো না, আসলে একটু ভুলের জন্য বা মুকুল ভাঙার লোভ সামলাতে না পারার কারনে ক্ষতিগ্রস্ত হন৷

webnewsdesign.com

সুস্বাদু বারোমাসি থাই কার্টিমন আম কিংবা বাংলাদেশ কৃষি গবেষণা ইনস্টিটিউট কর্তৃক উদ্ভাবিত বারোমাসি বারি আম-১১ঃ

কে না খেতে চায় এই সুস্বাদু আমগুলো??

টবে/ড্রামে/বানিজ্যিক ভাবে সকলেই এই আমগাছ রোপন করে অনেকেই আজ সফল!

বারোমাসি থাই কার্টিমন আম এর বৈশিষ্ট্যঃ

  • থাইল্যান্ডের আমের মাঝে বারোমাসি থাই কাটিমন সম্ভাবনাময় উন্নতজাত!
  • সারাবছর একই গাছে মুকুল, ছোট আম, বড় আম,পাকা আম পাওয়া যায়!
  • বানিজ্যিক চাষের জন্য বারোমাসি আমের মাঝে উচ্চ ফলনশীল আম!
  • যেমন ঘ্রান তেমন অতি মিষ্টি এই আম!
    আটি খুবই পাতলা এবং আঁশ বিহীন মিষ্টি মধুর আম!
  • পাকার পরেও অনেকদিন স্বাভাবিক ভাবে সংরক্ষণ করা যায়!
  • প্রতিটি আমের ওজন ৪০০ গ্রাম থেকে ৬০০ গ্রাম পর্যন্ত হয়ে থাকে!
  • মৌসুম ছাড়া এই আমের বাজার মূল্য অনেক বেশি হয়ে থাকে৷

বারোমাসি বারি আম ১১ এর বিশিষ্ট্যঃ

বারি আম ১১ বারোমাসি জাতের আম অর্থাৎ সারা বছরই ফল দিয়ে থাকে।

  • বছরে তিনবার ফল প্রদান করে থাকে। নভেম্বর, ফেব্রুয়ারি ও মে মাসে গাছে মুকুল আসে এবং মার্চ-এপ্রিল, মে-জুন এবং জুলাই-আগস্ট মাসে ফল আহরণের উপযোগী হয়।
  • ফল লম্বাটে ( লম্বায় ১১.৩ সেমি ) এবং প্রতিটি আমের গড় ওজন ৩০০-৩৫০ গ্রাম।
  • কাঁচা আমের ত্বক হালকা সবুজ। আর পাকলে ত্বক হয় হলুদাভ সুবজ।
  • আম গাছটির উচ্চতা ৬-৭ ফুট। গাছটির কোনো অংশে মুকুল, কিছু অংশে আমের গুটি, কিছু অংশে কাঁচা আম, আবার কোথাও পাকা আম। একটি গাছেই ফুটে উঠেছে আমের ‘জীবনচক্র’।
  • এটি খেতে সুস্বাদু, তবে একটু আঁশ আছে। ফলের শাঁস গাঢ় হলুদ বর্ণের।
  • এই জাতের ৪-৫ বছর বয়সী গাছ থেকে প্রতিবার ৬০-৭০টি আম আহরণ করা যায়। এছাড়াও এই জাতের একটি গাছে বছরে প্রায় ৫০ কেজি পর্যন্ত আম হয়ে থাকে।
  • বারি আম ১১ এর এক বছর বয়সী গাছে আমের মুকুল আসে।
  • আম গাছের একটি থোকার মধ্যে ৫-৬ টি আম থাকে।
  • আমের উচ্চফলনশীল এই জাতটি বাংলাদেশের সব এলাকায় চাষ উপযোগী।
  • আমের এই জাতটি সম্পূর্ণ দেশীয় আম হাইব্রিড নয়। এটি প্রাকৃতিকভাবে সংকরায়ণের ফলে সৃষ্ট।

লেখকঃ

কৃষিবিদ শিবব্রত ভৌমিক
কৃষি কর্মকর্তা, কৃষি ইউনিট
পিকেএসএফ এবং সাগরিকা সমাজ উন্নয়ন সংস্থা
ইমেইলঃsiba_bu@yahoo.com

মন্তব্য করতে পারেন...

comments

Powered by Facebook Comments

Social Media Auto Publish Powered By : XYZScripts.com