জনপ্রিয় লতিরাজ কচুর চাষবাস

সোমবার, ০৩ মে ২০২১ | ১২:০৬ পূর্বাহ্ণ | 255 বার

জনপ্রিয় লতিরাজ কচুর চাষবাস
লতিরাজ কচু আমাদের দেশে একটি অতি পরিচিত নাম। বর্তমানে আমদের দেশের চাহিদা মিটিয়ে বিদেশেও লতি রপ্তানি করা হচ্ছে। কচুর লতি মূলত পানি কচুই। লতিরাজ কচুতে প্রচুর পরিমাণে পুষ্টি রয়েছে। উৎপাদনের দিক দিয়ে মুখীকচুর পরই কচুর লতির স্থান। আসুন জেনে নেই লতিরাজ কচুর চাষাবাদ পদ্ধতি।

উপযোগী জলবায়ু ও মাটি


  • কচুর লতি উষ্ণ জলবায়ু পছন্দ করে।
  • কচুর লতি চাষের জন্য জমি হতে হবে মাঝারি নিচু  যেখানে বৃষ্টির পানি জমে। লতি কচু অল্প আলো বা ছায়াতেও ভাল জন্মাতে পারে।
  • প্রখর রোদে ভাল ফলন হয়। প্রায় সব ধরনের মাটিতে কচুর লতির চাষ করা যায তবে পলি দো-আঁশ ও বেলে দোআঁশ মাটিতে কচুর লতি চাষ করা উত্তম।

উল্লেখযোগ্য জাত


  • আমদের দেশে বেশ কয়েক প্রকার কচুর লতির জাত রয়েছে। এসব জাতের গাছ ছোট, পাতা ছোট ও চিকন সরু ও লম্বা লতি উৎপাদন কর
  • উন্নত জাতের লতি লম্বা ও মোটা এবং গিটযুক্ত, খাটো ও মোটা, শাসাল ও মাংসল দ্রুত গলে যায়।
  • বারি পানি কচু-১ ও বারি পানি কচু-২ এ দেশে উদ্ভাবিত পানিকচুর দুটি উন্নত জাত। এ দুটি জাত লতি উৎপাদনের জন্য ভালো জাত।

কিভাবে চারা তৈরি করবেন


  • কচুর লতি চাষ করার জন্য সেপ্টেম্বর মাসে জমির লতি তোলা শেষ হবার আগেই লতির আগায় জন্মানো চারা সংগ্রহ করতে হবে।
  • তারপরে সংরক্ষিত চারা গুলো কে আলাদা কোন জায়গায় পুঁতে রাখতে হবে।
  • জমিতে এসকল চার পুনরায় শীতের আগে লাগালে ফেব্রুয়ারী মাস থেকে মার্চ মাসে এসব গাছে লতি আসে।

উপযুক্ত জমি তৈরি ও চারা রোপন


  • কচুর লতি চাষ করার ক্ষেত্রে প্রথমে জমি তৈরি করে নিতে হবে। এজন্য জমিতে ৩ থেকে ৪টি চাষ দিয়ে মাটি সমান করে নিতে হবে।
  • কচুর লতির চারা জমিতে সারিবদ্ধভাবে লাগাতে হবে। সারিতে চারা লাগালে প্রতি হেক্টরে প্রায় ৩৮০০০ চারা লাগবে।
  • কচুর লতির চারা হিসেবে গুড়িচারা লাগানো হয়। অক্টোবর মাসে চারা লাগানোর উপুযুক্ত সময় এসময় চারা লাগালে ফেব্রুয়ারী থেকে মার্চ মাসে লতি পাওয়া যায়।

সার প্রয়োগ/ব্যবস্থাপনা 


  • কচুর লতির ভাল ফলন ও বেশি ফলন পেতে হলে জমিতে অবশ্যই সার দিতে হবে।
  • কচুর লতি চাষ করার জন্য বিঘাপ্রতি ৫০০ কেজি গোবর, ২৫ কেজি ইউরিয়া, ১৮ কেজি টিএসপি ও ২৫ কেজি এমওপি সার দিতে হবে।
  • কচুর লতি চাষ করার সময় সব সার একত্রে দেয়া যাবে না। প্রাথমিক পর্যায়ে ইউরিয়া ব্যতিত সব সার জমিতে ছিটিয়ে দিতে হবে।
  • চারা লাগানোর ২০ থেকে ২৫ দিন পরে জমিতে ইউরিয়া সার ব্যবহার করতে হবে।

সেচ ও পানি নিষ্কাশন


  • কচুর লতি চাষ করার ক্ষেত্রে সম্পূরক সেচের ব্যবস্থা থাকতে হবে।
  • চারা লাগানোর সময় জমিতে বদ্ধ পানি না থাকলে প্লাবন সেচ দিয়ে জমি কাদা করতে হবে।
  • জমি শুকিয়ে গেলে পানি কচু গাছের ক্ষতি হয়। তাই বৃষ্টি না হলে জমিতে প্রবাহমান পানি না থাকলে সেচ দিতে হবে।

আগাছা ও নিড়ানি


  • কচুর লতির জমিতে লতি কচুর গোড়ায় সব সময় পানি থাকতে হবে এবং দাঁড়ানো পানি মাঝে মাঝে নাড়াচাড়া করতে হবে।
  • জমিতে সবসময় পানি থাকলে আগাছার উপদ্রব কম হয়।
  • আগাছার মধ্যে শামুক আশ্রয় নেয় ও কচুর লতি গাছে উঠে পাতা খায়। তাই এসব আগাছা হাতে টেনে তুলে পরিষ্কার করে দিতে হবে।

মন্তব্য করতে পারেন...

comments

Powered by Facebook Comments

webnewsdesign.com

Social Media Auto Publish Powered By : XYZScripts.com