দুলাল সুন্দরী এখন ছাতকে

বৃহস্পতিবার, ১৮ মার্চ ২০২১ | ১:০১ অপরাহ্ণ | 207 বার

দুলাল সুন্দরী এখন ছাতকে

ধানের পাতা সোনালী রোদে চিকচিক করছে। চারদিকে সবুজে ভরা। তার মধ্যে আট শতক জমিতে বেগুনী রঙের ধান। সবুজের সাথে পাল্লা দিয়ে সেও বেড়ে চলেছে। দেখলে মনে হবে, পোকার আক্রমণে সারাক্ষেতের ধান বেগুনী হয়ে গেছে, বা ক্ষেতে বুঝি কোন রোগ লেগেছে। আসলে তা নয়। এটি এক ধরনের জাত, যার পাতা, ধান এবং চালের রঙই বেগুনী। আর ভাত? সেও।

 

দেশে প্রথমবারের মতো এ জাতের ধান চাষাবাদ করেন গাইবান্ধার সুন্দরগঞ্জের দুলালী বেগম। আর তার নামানুসারে এই ধানের নামকরণ করা হয় ‘দুলালী সুন্দরী’ নামে। আর প্রথমবারের মতো ছাতক উপজেলার খুরমা দক্ষিণ ইউনিয়নের চৌকা গ্রামে এই ধান চাষাবাদ হওয়ায় এক নজর এই দুলালী সুন্দরীকে দেখতে প্রতিদিন ভিড় করছেন উৎসুক জনতা। কেউ কেউ পোজ নিয়ে তুলছেন ছবি।
দুলালী সুন্দরীকে ছাতকে চাষ করেছেন চৌকা এলাকার কৃষক মোঃ আজির উদ্দিন।

webnewsdesign.com

 

উপজেলা কৃষি অফিস সূত্রে জানা যায়, এ ধানের গোছা প্রতি ১৮ হতে ২৮টি শিষ ধরে। পাশাপাশি একটি শীষে ১৬০ হতে ৩১৩টি পর্যন্ত ধান পাওয়া যেতে পারে। আমনের থেকে বোরো মওসুমে এটির ফলন ভাল পাওয়া যায়।

 

খুরমা দঃ ইউনিয়নের চৌকা গ্রামের কৃষক আজির উদ্দিন জানান, নিজস্ব উদ্যোগেই গাইবান্ধা থেকে সংগ্রহ করেছেন। প্রতিদিন ক্ষেতে অনেক মানুষ আসে। কেউ ছবি তোলে। আবার কেউ কেউ ধানের গোছ তুলে নিয়ে যায়। ক্ষেত রক্ষা করা কঠিন হয়ে পড়েছে। উপসহকারী কৃষি অফিসার নাসির উদ্দিন ও তদারকি করছে আর পরামর্শ দিয়ে যাচ্ছেন। আশা করছি ফলন ভাল হবে।

ছাতক উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা তৌফিক হোসেন খান জানান, গাইবান্ধার সুন্দরগঞ্জের দুলালী সুন্দরী জাতের ধান প্রথমবারের মত ছাতকে চাষ হয়েছে। এটি দেখতে বেগুনি হওয়ায় কৃষক আগ্রহ সহকারে এটি চাষ করেছে। মাঠে বিভিন্ন সময়ে তাদেরকে পরামর্শ দেওয়া হচ্ছে। আবহাওয়া ভাল থাকলে আশাকরি এর থেকে ভাল ফলন পাওয়া যাবে। এ ধানের বীজ সংরক্ষণের চেষ্টা করা হচ্ছে।

মন্তব্য করতে পারেন...

comments

Powered by Facebook Comments

Social Media Auto Publish Powered By : XYZScripts.com