নন-ক্যাডার লিখিত পরীক্ষায় করণীয়

বুধবার, ১৮ মে ২০২২ | ৫:৪০ অপরাহ্ণ | 135 বার

নন-ক্যাডার লিখিত পরীক্ষায় করণীয়

উপসহকারী কৃষি অফিসার/সমমান পদের লিখিত পরীক্ষায় প্রয়োগ করা যেতে পারে।

 

কমপক্ষে ৩০ মিনিট আগে পরীক্ষা কেন্দ্রে প্রবেশ করুন। আপনার কক্ষে প্রবেশ করে নির্ধারিত আসনে বসুন। বসার ও লেখার বেঞ্চে কোন সমস্যা যেমন: নড়াচড়া, গর্ত থাকা, রুগ্ন অবস্থা ইত্যাদি থাকলে প্রত্যবেক্ষককে জানাতে হবে। চারপাশে কোন অপ্রয়োজনীয় কাগজ থাকলে কুড়িয়ে জানালা দিয়ে বাইরে ফেলুন। এরপর ওয়াশ রুমে যেতে হবে বা অবস্থান দেখে আসতে হবে। পিপাসা না লাগলেও গলা ভিজিয়ে রাখার জন্য একটু পানি পান করা যেতে পারে।

webnewsdesign.com

 

কলম, পেন্সিল, রিরেজার, সাফনার, রুমাল বা টিস্যু পেপার ইত্যাদির কার্যোপযোগীতা দেখে নিন।
প্রায় ১৫ মিনিট আগে খাতা পাওয়ার পর চারটা খাতারই ওএমআর পৃষ্ঠাটির পরীক্ষার্থী অংশের বৃত্ত ভরাট (বিষয় কোড বাদে) করতে ৮-১০ মিনিট সময় লাগে। দায়িত্বরত প্রত্যবেক্ষক স্যারদেরকে বিষয় কোড জিজ্ঞেস করবেন, শোনার পর বিষয় কোড এর বৃত্ত গুলোও ভরাট করতে হবে। খাতার প্রথম পৃষ্ঠার উপরের ডানে অংশে খাতার নাম (বাংলা, ইংরেজি, সাধারণ জ্ঞান, টেকনিক্যাল-কৃষি) লেখা উত্তম।

খাতায় মার্জিন দেয়া সময়ের অপচয়। এর পরিবর্তে খাতার নিচ দিক বাদে বাকি তিন দিকে ০১ ইঞ্চি বরাবর ভাজ দিলে মার্জিন এর মত লাগে। ১৫ মিনিট শেষ।

প্রশ্নপত্র হাতে পাওয়ার পর যে বিষয় আপনি সবচেয়ে ভালো পারবেন সেটার উত্তর আগে করতে হবে। আমি সাধারণ জ্ঞান প্রথমে শুরু করতাম।প্রথমে প্রশ্ন নির্বাচন করুন কোন গুলো উত্তর করবেন। তারপর উত্তর শুরু করুন। কোন প্রশ্নের কোন অংশ উত্তর করতে না পারলে সেই অংশটুকু আন্ডার লাইন করে রাখা যেতে পারে যাতে রিভাইজ এর সময় সহজেই চোখে পরে। সাধারণ জ্ঞান হলে উত্তর করতে সময় লাগবে প্রায় ২০ মিনিট।

এরপর একইভাবে ১:২০ ঘন্টায় টেকনিক্যাল বিষয় উত্তর করা যেতে পারে। সময় গেল ১:৪০ ঘন্টা।

তারপর এভাবে ৩০ মিনিটে বাংলা (রচনা বাদে) ও ৩০ মিনিটে ইংরেজি (রচনা বাদে) উত্তর করুন। সময় গেল ২:৪০ ঘন্টা।

এখন ৩০ মিনিটে রিভাইজ দিন। গেল ৩:১০ ঘন্টা। রিভাইজ করার সময় বানান ভুল হলে ঠিক করণ, কোন প্রশ্ন বা প্রশ্নের কিছু অংশ বাদ থাকলে মনে পড়লে সেটার উত্তর করুন।

বাকি ৫০ মিনিটের মধ্যে বাংলা রচনা ২৫ মিনিট এবং ২৫ মিনিটে ইংরেজি রচনা লেখা যেতে পারে। ৪:০০ ঘন্টা শেষ , খাতাগুলো গুছিয়ে জমা দিন।

কিছু বিষয়:


০১। উত্তরপত্রে বৃত্ত ভরাটে কোন ভুল হলে দায়িত্বরত প্রত্যবেক্ষককে জানান। কাটাকাটি করলে তার পাশে প্রত্যবেক্ষক এর স্বাক্ষর নিন। স্বাক্ষর না নিলে খাতা বাতিল হতে পারে।
০২। উত্তরপত্রে প্রশ্ন নং কে সবুজ বা নীল রংয়ের বলপয়েন্ট কালি দিয়ে আন্ডার লাইন করা যেতে পারে।
০৩। উত্তরগুলো কালো বলপয়েন্ট কলম দিয়ে লেখা বাধ্যতামূলক। কোন ভাবেই জেল পেন দিয়ে লাগে যাবে না। খাতায় কোন ভাবেই লাল কলম ব্যবহার করা যাবে না তবে প্রশ্ন নং উল্লেখ করতে বা আন্ডারলাইন করতে সবুজ/নীল রংয়ের বলপয়েন্ট কলম ব্যবহার করা যেতে পারে।
০৪। চিত্র 3B/4B পেন্সিল দিয়ে অংকন করা উত্তম তবে কলম/2B/HB পেন্সিল দিয়ে চিত্র অংকন করলে মার্কস কমবে না।

আল্লাহ আমাদের সহায় হোন!

মন্তব্য করতে পারেন...

comments

Powered by Facebook Comments

Social Media Auto Publish Powered By : XYZScripts.com