বাংলাদেশেও প্লাজমা থেরাপি কার্যক্রম শুরু হয়েছে

সোমবার, ০১ জুন ২০২০ | ১:৩৭ অপরাহ্ণ | 556 বার

বাংলাদেশেও প্লাজমা থেরাপি কার্যক্রম শুরু হয়েছে

☞ প্লাজমা কি?
◑ উত্তরঃ রক্তের তরল অংশ হল প্লাজমা।

☞ কনভালেসেন্ট প্লাজমা কাকে বলে?

webnewsdesign.com

◑ উত্তরঃ SARS-COV-2 (Severe Acute Respiratory Syndrome Corona Virus 2) এ আক্রান্ত COVID-19 (Corona Virus Disease-19) (কোভিড-১৯) রোগী যারা সম্পূর্ণ রুপে সুস্থ হয়ে গেছেন তাদের রক্তের তরল অংশ হল কনভালেসেন্ট প্লাজমা।

COVID-19 রোগীদের রক্তে ভাইরাসের বিরুদ্ধে অ্যান্টিবডি তৈরি হয়। অ্যান্টিবডি হল এমন প্রোটিন যা সংক্রমণের (Infection) বিরুদ্ধে লড়াই করতে সহায়তা করে।

এই রোগের কোনও অনুমোদিত চিকিৎসা এখন পর্যন্ত নেই। বিভিন্ন দেশে বিভিন্ন রকম ঔষধ ব্যবহার করা হচ্ছে এ রোগের চিকিৎসায়। বিভিন্ন রকম গাইড লাইন তৈরি হয়েছে এরই মধ্যে। বর্তমানে ভ্যাকসিনসহ অনেক ঔষুধ নিয়ে গবেষণা চলমান। নিত্য নতুন তথ্য সামনে আসছে।

তবে আশার আলো দেখাচ্ছে এই কনভালেসেন্ট প্লাজমা। কনভালেসেন্টস প্লাজমা কোভিড -19 এর চিকিৎসার জন্য বিভিন্ন দেশে ব্যবহার করা হচ্ছে। অনেক দেশই সাফল্যের দাবী করছে।

☞ কনভালেসেন্ট প্লাজমা কখন একজন মানুষ দিতে পারবে?

◑ উত্তরঃ প্লাজমা দেওয়ার আগে নিচের শর্তাবলী পূরণ করতে হবেঃ

১। কোভিড-১৯ থেকে সম্পূর্ণরুপে সুস্থ হওয়ার পর কমপক্ষে ১৪ দিন লক্ষণ ছাড়া থাকতে হবে।
২। প্লাজমা দাতা যে কোভিড-১৯ এ আক্রান্ত ছিলেন তার সুনিশ্চিত ল্যাবরেটরি টেস্ট রিপোর্ট লাগবে।
৩। প্লাজমা দাতাকে রক্ত দানের (Blood donation) এর যে অন্যান্য শর্তাবলি (Criteria) আছে তা পূর্ণ করতে হবে।

বাংলাদেশেও প্লাজমা থেরাপি কার্যক্রম শুরু হয়েছে। কিন্তু পর্যাপ্ত ডোনারের অভাবে অনেক রোগী এই সেবাটি গ্রহন করতে পারছে না। তাই সেসকল রোগীদের স্বার্থে আমরা চাইছি একটি স্বয়ংসম্পূর্ণ প্লাজমা ডোনার তথ্য কেন্দ্র তৈরী করতে যাতে যেকোনো সময় করোনা আক্রান্ত রোগীর সহায়তায় সেটি ব্যবহার করা যায়। অন্তত চেষ্টা করা যায় যাতে কোন রোগী ডোনারের অভাবে চিকিৎসা থেকে বঞ্চিত না হয়।

সহযোগীতার হাত বাড়ান, নিজে বেঁচেছেন অন্যের জীবন বাঁচান।

ডা. নাজিম উদ্দিন, মেডিকেল অফিসার, ট্রাস্ট ওয়ান জেনারেল হসপিটাল, নোয়াখালী।

মন্তব্য করতে পারেন...

comments

Powered by Facebook Comments

Social Media Auto Publish Powered By : XYZScripts.com