মিঠামইনে তিনজন কৃষি কর্মকর্তার “শ্রেষ্ঠ কর্মকর্তা সম্মাননা-২০২১” পদক অর্জন

রবিবার, ২৪ জানুয়ারি ২০২১ | ৭:৫১ অপরাহ্ণ | 350 বার

মিঠামইনে তিনজন কৃষি কর্মকর্তার “শ্রেষ্ঠ কর্মকর্তা সম্মাননা-২০২১” পদক অর্জন

পেশাদারিত্বে প্রতিভার স্বীকৃতিস্বরূপ কিশোরগঞ্জ জেলার হাওর উপজেলাগুলোর মধ্যে মিঠামইন উপজেলা কৃষিতে তিন জন কর্মকর্তা শ্রেষ্ঠত্বের সম্মাননা পুরস্কার পেয়েছেন।

সোমবার (১৯ জানুয়ারি) কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের ঢাকা অঞ্চলের অতিরিক্ত পরিচালক কৃষিবিদ বশির আহম্মদ সরকার প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে ১৩ টি উপজেলায় পাঁচটি ক্যাটাগরিতে শ্রেষ্ঠত্বের কীর্তিত্ব অর্জনকারীদের হাতে এ সম্মাননা সনদ ও পুরষ্কার তুলে দেন।

webnewsdesign.com

শ্রেষ্ঠ নির্বাচিত মনোনীতের ক্ষেত্রে কৃষি প্রযুক্তি সম্প্রসারণে কার্যদক্ষতা, জ্ঞান ও অন্যান্য বৈশিষ্ট্য বিবেচনায় আনা হয় বলে কিশোরগঞ্জ আঞ্চলিক কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর সূত্র জানায়।

এতে জেলায় উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা হিসেবে মিঠামইন উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা কৃষিবিদ মো: রাফিউল ইসলাম শ্রেষ্ঠত্বে দ্বিতীয়, জেলায় উপজেলা উপসহকারী কৃষি কর্মকর্তা হিসেবে আনিছুর রহমান তৃতীয় এবং উপজেলার উপসহকারী কৃষি কর্মকর্তা হিসেবে শ্রেষ্ঠ নির্বাচিত হয়েছেন মো: তাজুল ইসলাম।

মুজিববর্ষ উপলক্ষে কিশোরগঞ্জ আঞ্চলিক কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের আয়োজনে খামারবাড়িতে অনুষ্ঠিত উপ-পরিচালক কৃষিবিদ মো: ছাইফুল আলমের সভাপতিত্বে জেলার বিভিন্ন পর্যায়ের কর্মকর্তাদের সম্মাননা অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন কিশোরগঞ্জ গাইটাল হার্টিকালচার সেন্টারের উপপরিচালক কৃষিবিদ আবু আদনান।

বিশেষজ্ঞের মধ্যে আরও উপস্থিত ছিলেন জেলা প্রশিক্ষণ কর্মকর্তা কৃষিবিদ মো: শফিকুল ইসলাম, এডিডি (শস্য) কৃষিবিদ মো: আশিক পারভেজ, এডিডি (উদ্যান) কৃষিবিদ মুহাম্মদ মতিউর রহমান।

জেলা সদর উপজেলার কৃষি সম্প্রসারণ কর্মকর্তা আব্দুস সালামের সঞ্চালনায় ১৩ টি উপজেলার কৃষি কর্মকর্তা, কৃষি সম্প্রসারণ কর্মকর্তা, পুরস্কৃত উপ-সহকারী উদ্ভিদ সংরক্ষণ কর্মকর্তা এবং উপ-সহকারী কৃষি কর্মকর্তাগণ উপস্থিত ছিলেন।

উপজেলা কৃষি কর্মকর্তার মধ্যে শ্রেষ্ঠত্বে তিন জনের মধ্যে প্রথম পাকুন্দিয়ার সাইফুল হাসান (আল আমিন), দ্বিতীয় মিঠামইনের মো: রাফিউল ইসলাম ও তৃতীয় হয়েছেন কটিয়াদীর মুকসেদুল হক।

জেলা পর্যায়ে জেলা সদর উপজেলার কৃষি সম্প্রসারণ কর্মকর্তা আব্দুস সালাম ও উপ-সহকারী উদ্ভিদ সংরক্ষণ কর্মকর্তা আবুল হাসেম শ্রেষ্ঠ নির্বাচিত হন।

জেলা পর্যায়ে উপ-সহকারী কর্মকর্তার মধ্যে শ্রেষ্ঠত্বে প্রথম পাকুন্দিয়ার হামিমুল হক (সোহাগ) , দ্বিতীয় কটিয়াদীর নুরে আলম ও মিঠামইনেের আনিছুর রহমান তৃতীয় হয়েছেন।

জেলার ১৩ উপজেলা থেকে ১৩ জন উপ-সহকারী কৃষি কর্মকর্তাকে শ্রেষ্ঠত্বের সম্মাননা সনদ ও পুরস্কার দেওয়া হয়। মিঠামইনের গোপদিঘী ব্লকের উপ-সহকারী কর্মকর্তা মো: তাজুল ইসলামের শ্রেষ্ঠত্বে হাওর অধ্যুষিত উপজেলাগুলোর মধ্যে মিঠামইন উপজেলাকে এগিয়ে দেয়।

সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, ১৩ টি উপজেলার মধ্যে ৩টি উপজেলা ৩টি করে শ্রেষ্ঠত্বের সম্মাননা অর্জন করেন। হাওর উপজেলাগুলোর মধ্যে মিঠামইন এগিয়ে।

কিশোরগঞ্জ অঞ্চলের উপপরিচালক মো: ছাইফুল আলম এই মহতী উদ্যোগের বিষয়ে বলেন, জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষে কৃষি ও কৃষককে এগিয়ে নিতে এই সম্মাননা পুরস্কার হতে পারে প্রেরণার উৎস। জাগিয়ে তুলতে পারে কর্মোদ্দীপনা ও পেশাদারিত্বে প্রতিযোগিতার মনোভাব।

রাষ্ট্রপতিপুত্র এমপি প্রকৌশলী রেজওয়ান আহাম্মদ তৌফিকের আস্থাভাজন মিঠামইন উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা মো: রাফিউল ইসলাম বলেন, এটা কর্তব্যনিষ্ঠতার স্বীকৃতি। তা কৃষি বিভাগের অন্যদেরকেও দায়িত্বে অনুপ্রাণিত করবে।

মিঠামইন উপজেলার মহিষারকান্দি গ্রামের আদর্শ কৃষক বাহার উদ্দিন ও কামালপুর গ্রামের দ্বীন ইসলাম এবং গোপদিঘী গ্রামের এজাজ আহম্মদ, সরালিয়া হাটির আশকর আলী ও খাসাপুর গ্রামের আ: মতিন বলেন, ‘ইনারা অইলেন গিয়া আমরার ডাক্তর।’

মন্তব্য করতে পারেন...

comments

Powered by Facebook Comments

Social Media Auto Publish Powered By : XYZScripts.com