কলমের চারায় ১ম বার এমনকি ২য় বার মুকুল আসা অনেকটা কুমারী মেয়ে অল্পবয়সে গর্ভবতী হওয়ার মতো!

সোমবার, ০১ ফেব্রুয়ারি ২০২১ | ৭:১৪ অপরাহ্ণ | 592 বার

কলমের চারায় ১ম বার এমনকি ২য় বার মুকুল আসা অনেকটা কুমারী মেয়ে অল্পবয়সে গর্ভবতী হওয়ার মতো!

Warning: Use of undefined constant linklove - assumed 'linklove' (this will throw an Error in a future version of PHP) in /home/chasrhxr/public_html/wp-content/plugins/facebook-comments-plugin/class-frontend.php on line 99

কলমের চারায় ১ম বার এমনকি ২য় বার মুকুল আসা অনেকটা কুমারী মেয়ে অল্পবয়সে গর্ভবতী হওয়ার মতো!

তাই আমের মতো যেকোনো কলমের চারায় অন্তত প্রথম ২ বার মুকুল বা ফুল ভেঙে দেয়া উত্তম, এতে গাছ শক্তিশালী হওয়ার যথেষ্ট সময় পায় এবং পরবর্তীতে ভালো ফলন দেয়৷ অনেকে এই ভুলটা করেন বলে ১ম বার আম খেয়ে পরে ৩-৫ বছর আর ফলন পান না, তখন বলেন জাত ভালো না, আসলে একটু ভুলের জন্য বা মুকুল ভাঙার লোভ সামলাতে না পারার কারনে ক্ষতিগ্রস্ত হন৷

webnewsdesign.com

সুস্বাদু বারোমাসি থাই কার্টিমন আম কিংবা বাংলাদেশ কৃষি গবেষণা ইনস্টিটিউট কর্তৃক উদ্ভাবিত বারোমাসি বারি আম-১১ঃ

কে না খেতে চায় এই সুস্বাদু আমগুলো??

টবে/ড্রামে/বানিজ্যিক ভাবে সকলেই এই আমগাছ রোপন করে অনেকেই আজ সফল!

বারোমাসি থাই কার্টিমন আম এর বৈশিষ্ট্যঃ

  • থাইল্যান্ডের আমের মাঝে বারোমাসি থাই কাটিমন সম্ভাবনাময় উন্নতজাত!
  • সারাবছর একই গাছে মুকুল, ছোট আম, বড় আম,পাকা আম পাওয়া যায়!
  • বানিজ্যিক চাষের জন্য বারোমাসি আমের মাঝে উচ্চ ফলনশীল আম!
  • যেমন ঘ্রান তেমন অতি মিষ্টি এই আম!
    আটি খুবই পাতলা এবং আঁশ বিহীন মিষ্টি মধুর আম!
  • পাকার পরেও অনেকদিন স্বাভাবিক ভাবে সংরক্ষণ করা যায়!
  • প্রতিটি আমের ওজন ৪০০ গ্রাম থেকে ৬০০ গ্রাম পর্যন্ত হয়ে থাকে!
  • মৌসুম ছাড়া এই আমের বাজার মূল্য অনেক বেশি হয়ে থাকে৷

বারোমাসি বারি আম ১১ এর বিশিষ্ট্যঃ

বারি আম ১১ বারোমাসি জাতের আম অর্থাৎ সারা বছরই ফল দিয়ে থাকে।

  • বছরে তিনবার ফল প্রদান করে থাকে। নভেম্বর, ফেব্রুয়ারি ও মে মাসে গাছে মুকুল আসে এবং মার্চ-এপ্রিল, মে-জুন এবং জুলাই-আগস্ট মাসে ফল আহরণের উপযোগী হয়।
  • ফল লম্বাটে ( লম্বায় ১১.৩ সেমি ) এবং প্রতিটি আমের গড় ওজন ৩০০-৩৫০ গ্রাম।
  • কাঁচা আমের ত্বক হালকা সবুজ। আর পাকলে ত্বক হয় হলুদাভ সুবজ।
  • আম গাছটির উচ্চতা ৬-৭ ফুট। গাছটির কোনো অংশে মুকুল, কিছু অংশে আমের গুটি, কিছু অংশে কাঁচা আম, আবার কোথাও পাকা আম। একটি গাছেই ফুটে উঠেছে আমের ‘জীবনচক্র’।
  • এটি খেতে সুস্বাদু, তবে একটু আঁশ আছে। ফলের শাঁস গাঢ় হলুদ বর্ণের।
  • এই জাতের ৪-৫ বছর বয়সী গাছ থেকে প্রতিবার ৬০-৭০টি আম আহরণ করা যায়। এছাড়াও এই জাতের একটি গাছে বছরে প্রায় ৫০ কেজি পর্যন্ত আম হয়ে থাকে।
  • বারি আম ১১ এর এক বছর বয়সী গাছে আমের মুকুল আসে।
  • আম গাছের একটি থোকার মধ্যে ৫-৬ টি আম থাকে।
  • আমের উচ্চফলনশীল এই জাতটি বাংলাদেশের সব এলাকায় চাষ উপযোগী।
  • আমের এই জাতটি সম্পূর্ণ দেশীয় আম হাইব্রিড নয়। এটি প্রাকৃতিকভাবে সংকরায়ণের ফলে সৃষ্ট।

লেখকঃ

কৃষিবিদ শিবব্রত ভৌমিক
কৃষি কর্মকর্তা, কৃষি ইউনিট
পিকেএসএফ এবং সাগরিকা সমাজ উন্নয়ন সংস্থা
ইমেইলঃsiba_bu@yahoo.com

মন্তব্য করতে পারেন...

comments

Powered by Facebook Comments