অতীশ দীপঙ্কর ইউনিভার্সিটি ও সুপ্রিম সীড কোম্পানির মধ্যে সমঝোতা চুক্তি স্বাক্ষরিত

বৃহস্পতিবার, ১৯ মে ২০২২ | ৮:৫৪ অপরাহ্ণ | 75 বার

অতীশ দীপঙ্কর ইউনিভার্সিটি ও সুপ্রিম সীড কোম্পানির মধ্যে সমঝোতা চুক্তি স্বাক্ষরিত

অতীশ দীপঙ্কর ইউনিভার্সিটি অফ সায়েন্স এন্ড টেকনোলজি এর এগ্রিবিজনেস ডিপার্টমেন্ট ও সুপ্রিম সীড কোম্পানি লিমিটেডের মধ্যে গবেষণা, ট্রেনিং ও শিক্ষার্থীদের ক্যারিয়ার ডেভলপমেন্ট বিষয়ে সমঝোতা চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়েছে।

 

আজ বৃস্পতিবার (১৯ মে ২০২২) সুপ্রিম সীড কোম্পানি লিমিটেডের কনফারেন্স রুমে সমঝোতা চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়। চুক্তি স্বাক্ষর অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন অতীশ দীপঙ্কর ইউনিভার্সিটি অফ সায়েন্স এন্ড টেকনোলজি এর ভাইস চ্যান্সেলর প্রফেসর ড. মো. জাহাঙ্গীর আলম, এগ্রিবিজনেস ডিপার্টমেন্টের এডভাইসর শেরেবাংলা কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের এগ্রোনমি বিভাগের অধ্যাপক এবং বাংলাদেশ একাডেমি অব সায়েন্স এর সম্মানিত ফেলো প্রফেসর ড. মির্জা হাসানুজ্জামান, সুপ্রিম সীড কোম্পানি লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক এ এইচ এম হুমায়ুন কবির, সুপ্রিম সীড কোম্পানি লিমিটেডের ভাইস চেয়ারম্যান মো. মকফর উদ্দিন আকন্দ, এগ্রিবিজনেস বিভাগের চেয়ারম্যান, ড. সোনিয়া তাবাসসুম আহমেদ, সুপ্রিম সীড কোম্পানি লিমিটেডের প্রিন্সিপাল সীড টেকনোলজিস্ট ও রিসার্চ কো-অর্ডিনেটর, ড. উম্মে সিরাজুম মনিরা, এগ্রিবিজনেস ডিপার্টমেন্টের সহকারী অধ্যাপক ও কো-অর্ডিনেটর, মোঃ মাসুদুল হাসান, ডিপার্টমেন্টের সকল শিক্ষকসহ উভয় প্রতিষ্ঠানের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাবৃন্দ।

webnewsdesign.com

 

দেশে এগ্রিবিজনেস খাতে রয়েছে প্রচুর সম্ভাবনা। তবে প্রয়োজন দক্ষ ও মেধাবী মানব সম্পদ। বাংলাদেশের প্রেক্ষাপটে এগ্রিবিজনেসের মূল সমস্যাটি হল এগ্রিবিজনেসের জন্য কাঁচামাল সরবরাহকারী, কৃষক, ব্যবসায়ী, প্রক্রিয়া জাতকারী এবং সেবা প্রদানকারীদের মধ্যে কার্যকর ভ্যালু চেইন লিংকেজ এর অভাব। উৎপাদন, প্রসেসিং ও মার্কেটিং এই তিনটি ভাগে এগ্রিবিজনেস বিভক্ত।সেই জন্যে কৃষিখাতে উন্নতি করার জন্য অধিক গবেষণার প্রয়োজন।

অতীশ দীপঙ্কর ইউনিভার্সিটি অফ সায়েন্স এন্ড টেকনোলজি এর ভাইস চ্যান্সেলর প্রফেসর ড. মো. জাহাঙ্গীর আলম বলেন, ক্রমবর্ধমান জনসংখ্যা, ক্রমহ্রাসমান কৃষিজমি, জলবায়ু পরিবর্তনজনিত বিরূপ প্রভাব প্রভৃতি কারণে দেশের বিশাল জনগোষ্ঠীর জন্য খাদ্য সংস্থান এক বিরাট চ্যালেঞ্জ। এগ্রিবিজনেস বিভাগ হতে পাসকৃত সকল মেধাবী ছাত্র-ছাত্রীরা দেশের কৃষি উন্নয়নের জন্য ব্যাপক অবদান রাখছে। আধুনিক প্রযুক্তি কাজে লাগিয়ে এগ্রিবিজনেস প্রসার ও উপযুক্ত শিক্ষায় শিক্ষিত করে প্রতিযোগিতামূলক অর্থনৈতিক চ্যালেঞ্জ মোকাবেলায় যোগ্য করে তোলার জন্য অতীশ দীপঙ্কর ইউনিভার্সিটি অফ সায়েন্স এন্ড টেকনোলজি এর এগ্রিবিজনেস বিভাগ নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে। উক্ত চুক্তি এগ্রিবিজনেস বিভাগের গবেষণা খাতে সহযোগিতা ও শিক্ষার্থীদের ক্যারিয়ার ডেভলপমেন্ট এ উল্লেখযোগ্য অবদান রাখবে বলে প্রত্যয় ব্যক্ত করেন।

 

সুপ্রিম সীড কোম্পানি লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক এ এইচ এম হুমায়ুন কবির বলেন, উৎপাদন, প্রসেসিং ও মার্কেটিং এই তিনটি ভাগে এগ্রিবিজনেস বিভক্ত। কৃষিখাতে উন্নতি করার জন্য অধিক গবেষণার প্রয়োজন। সুপ্রিম সীড কোম্পানি লিমিটেড বাংলাদেশের সীড সেক্টরে অসামান্য অবদান রেখে চলেছে। তিনি আশাবাদ ব্যক্ত করেন, উক্ত চুক্তির মধ্যে দিয়ে দুই প্রতিষ্ঠান এগ্রিবিজনেস সেক্টরে গবেষণা ও উন্নয়নে একসাথে কাজ করতে সক্ষম হবে।

মন্তব্য করতে পারেন...

comments

Powered by Facebook Comments

Social Media Auto Publish Powered By : XYZScripts.com